logo
news image

স্বামীকে খুশি রাখতে রানী মুখার্জি যা করেন

২০১৪ সালে রানী মুখার্জি অভিনীত ‘মর্দানি’র পর থেকে আর রূপালি পর্দায় দেখা যায়নি বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী রানী মুখার্জিকে। মাঝে ব্যক্তিগত জীবনের ব্যস্ততা, বিয়ে, সন্তান। প্রায় বছর তিনেক পরে ‘হিচকি’ সিনেমা নিয়ে বড় পর্দায় ফিরেছেন তিনি। এরই মধ্যে ছবিটি ব্যবসা সফলের তকমা পেয়েছে।

ছবিটি নিয়ে রানী ভারতীয় একটি গণমাধ্যমকে বলেছেন, অনেক সময় এমন হয় যে ছবিটা আমাদের পছন্দ হয়, কিন্তু দর্শক তা গ্রহণ করেন না। কিন্তু ‘হিচকি’-র মাধ্যমে যে বার্তা আমরা দিয়েছি তা সকলে গ্রহণ করেছেন। শিক্ষকরা এই ছবিটা থেকে অনেক প্রেরণা পেয়েছেন। যখন কোনো শিক্ষক-ছাত্রের সম্পর্কের ওপর কথা হবে তখন ‘হিচকি’-কে উদাহরণ হিসেবে টানা হবে বলে আমার বিশ্বাস। আমি মনে করি, ‘হিচকি’ একটা এমন ছবি যা সারাজীবন মানুষ মনে রাখবে। এমন নয় যে দু’বছর পর ছবিটার কথা ভুলে যাবে।

একজন অভিনেত্রীকে সবসময় গ্ল্যামারাস থাকতে হয়। তার জন্য কতটা চাপে থাকেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, একদমই না। অভিনেত্রী হিসেবে নয় বরং স্ত্রী হিসেবে চাপে থাকি। আমি শুধু আদির (স্বামী আদিত্য চোপড়া) জন্য সাজি। বরকে খুশি রাখতে সাজতে হয়। বিয়ের পর এটা জরুরি হয়ে দাঁড়ায় যে আপনাকে রোজই যেন সুন্দর লাগে আপনার স্বামীর। আমি অভিনেত্রী পরে, আগে তো আমি স্ত্রী। স্বামী যখন সারাদিন পর বাড়িতে ফেরেন তখন উনি কী দেখতে চান? একটা হাসিখুশি সুন্দর মুখ, আর বাড়ির সুন্দর বাতাবরণ।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top