logo
news image

আখ সংকটে নবেসুমি বন্ধ

লালপুর (নাটোর) প্রতিনিধি
মাঠে ৩০ হাজার মেট্রিক টন আখ রেখেই নাটোরের লালপুরের নর্থ বেঙ্গল সুগার মিল ৫২ কর্মদিবসে ৯০তম মাড়াই মৌসুম সমাপ্ত করা হয়েছে।
রোববার (১৫ জানুয়ারি ২০২৩) রাতে চলতি মৌসুমে মিলে আখের সরবরাহ না পাওয়ায় লক্ষ্যমাত্রা পূরণে ব্যর্থ হয়ে শত কোটি টাকা ঋণের বোঝা মাথায় নিয়ে আখ মাড়াই কার্যকম বন্ধ ঘোষণা দেয় কর্তৃপক্ষ।
মিল সূত্রে জানা যায়, মাঠে প্রায় ৩০ হাজার মেট্রিক টন আখ থাকা সত্ত্বেও মিলে সরবরাহ না পাওয়ায় মাত্র ৫২ কর্মদিবসে মাড়াই বন্ধের ঘোষণা দেওয়া হয়। চলতি মৌসুমে ৫২ কর্মদিবসে (১৫ জানুয়ারি পর্যন্ত) এই মিল প্রায় ৮১ হাজার ৮৪০ মেট্রিক টন আখ করে প্রায় ৪ হাজার ৩২২ মেট্রিক টন চিনি উৎপাদন করে। চিনি আহরণের হার ছিল শতকরা ৫ দশমিক ৩৩ ভাগ। গড়ে প্রতিদিন মাড়াই ১ হাজার ৬০৩ মেট্রিক টন।
৬৫ কোটি টাকা লোকসানের বোঝা নিয়ে ১ লাখ ৪০ মেট্রিক টন আখ মাড়াই করে ৯ হাজার ৮০০ মেট্রিক টন চিনি উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করে গত ২৫ নভেম্বর চলতি মৌসুমে আখ মাড়াই শুরু হয়। এ বছর চাষকৃত মিলের নিজস্ব ৫৭৫ একরসহ প্রায় ১৮ হাজার ১০০ একর জমিতে ২ লাখ ৪০ হাজার মেট্রিক টন আখ উৎপাদিত হয়।
কৃষকেরা বলেন, মিলে আখ সরবরাহ করে ১৮০ টাকা মণ দেওয়া হলেও ভোগান্তিতে পড়তে হয়। মাড়াইকলে বেশি দামে ২৮০ থেকে ৩০০ টাকা মণ দরে অগ্রিম পরিশোধ করছে। ফলে মিলে আখ সরবরাহে অনিহা দেখা যায়। এ ছাড়া খাবার গুড় তৈরিতে অনেকে আখ মাড়াই করে থাকেন।
মিলের মহাব্যবস্থাপক (কৃষি) মো. আসহাব উদ্দিন বলেন, মিল এলাকায় ৪০৯টি অবৈধভাবে পাওয়ার ক্রাশারে আখ মাড়াই চলছে। অবৈধ আখ মাড়াইকল জব্দ সাঁড়াশি অভিযান চালায় প্রশাসন। এছাড়া ভেজাল গুড় তৈরি রোধে জরিমানা ও ভেজাল দ্রব্য ধ্বংস করা হয়।  
মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) আনিসুল আজম বলেন, চলতি মৌসুমে পর্যাপ্ত আখ উৎপাদনে চাষিদের সার-বীজ দিয়ে সহায়তা সত্বেও আখ সরবরাহ না করায় মাড়াই কার্যক্রম বন্ধ করতে হয়েছে। এলাকার মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়নের কথা ভেবে চাষিরা আগামীতে পর্যাপ্ত আখ মিলে সরবরাহ করবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top