logo
news image

লালপুরে কোরবানীর জন্য প্রস্তুত ৩২ হাজার পশু

আনোয়ারা ইমাম শেফালী :
নাটোরের লালপুর উপজেলার খামারিরা কোরবানির জন্য প্রস্তুত ৩২ হাজার পশু। কোরবানিকে সামনে রেখে এসব পশু বিক্রির জন্য ক্রেতা খুঁজে পাচ্ছেন না বলে জানিয়েছেন খামারিরা।
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় এবার কোরবানির জন্য প্রস্তুত রয়েছে ৩২ হাজারের বেশি পশু। এর মধ্যে গরু ১১ হাজার ৭২৮ টি, ছাগল ২০ হাজার ৩৩ টি ও মহিষ ৪৪৫ টি। গত বছরের তুলনায় প্রায় এক হাজার বেশি পশুর অধিকাংশই প্রস্তুত করা হয়েছে কৃষকের বাড়িতে।
কচুয়া খামারী বজলুর রহমান জানান, কোরবানি ঈদ সামনে রেখে দুইটি গরু পালন করেছেন। ঈদ ঘনিয়ে আসলেও ক্রেতা পাচ্ছেন না।
কাজিপাড়া গ্রামের ‘হেরা এগ্রো এন্ড ফিশারিজ’ খামার মালিক আব্দুল মোতালেব রায়হান জানান, কোরবানির জন্য ২০টি গরু রয়েছে। এক বছর ধরে পালনে ২৫ লাখ টাকা খরচ হয়ে গেছে। এখন পর্যন্ত কোন ক্রেতা পাওয়া যাচ্ছে না।
উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা সুমারী খাতুন বলেন, কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে খামারীরা পশু পালন করেছেন। অনলাইনে পশু কেনাবেচা করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এতে তারা লাভবান হবেন। প্রাণিসম্পদ কার্যালয় থেকে সব সময় পশু পালনকারীদের পরার্মশ দেওয়া হচ্ছে।
লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাম্মী আক্তার বলেন, করোনা ও কৃষকের কথা বিবেচনায় চলছে গবাদিপশুর হাট। বাঁশ দিয়ে পশু রাখার জায়গা ফাঁকা করে দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে ইজারাদারকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top