logo
news image

গোল্ডেন গ্লোবেও ‘টাইমস আপে’র নির্যাস

প্রতিরক্ষা তহবিলে জমা পড়েছে ১৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। শুধু তা-ই নয়, নায়িকাদের এই উদ্যোগের প্রতি সংহতি জানিয়ে ৭৫তম গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার আসরে সবাই পরে এসেছিলেন কালো রঙের পোশাক। মঞ্চের পেছনে যাঁরা কাজ করেছেন, তাঁদের পরনেও ছিল কালো পোশাক। এমনকি যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে টিভি সেটের সামনে অনেক দর্শক কালো পোশাক পরে পুরস্কার বিতরণী দেখতে বসেছিলেন বলে জানায় মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল ই! বছরের প্রথম এ বড় পুরস্কার আয়োজনের লালগালিচা থেকে মঞ্চ—সব জায়গাতেই তারকাদের বক্তব্যে ছিল ‘টাইমস আপ’-এর নির্যাস।

গোল্ডেন গ্লোবের লালগালিচায় তারকাদের সাক্ষাৎকার সরাসরি সম্প্রচার করে চ্যানেল ই! সেই টিভি চ্যানেলকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময়ই মার্কিন অভিনেত্রী ডেবরা মেসি চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে একচোট নেন। তিনি বলেন, ‘আমি জেনে ভীষণ অবাক হয়েছিলাম যে চ্যানেল ই! তাঁদের নারী উপস্থাপকদের পুরুষ উপস্থাপক থেকে কম বেতন দেয়।’ তাঁর এই সাক্ষাৎকারের ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে।
এদিকে সোমবার ডেবরার পথেই হেঁটেছেন আরেক নায়িকা ইভা লনগোরিয়া। গত মাসে চ্যানেল ই!-এর প্রায় এক যুগের পুরোনো উপস্থাপিকা ক্যাট স্যালডার চাকরি ছেড়ে চলে গিয়েছেন। কারণ, তিনি কিছুদিন আগে জানতে পারেন, একই সমান কাজ করেও তাঁর পুরুষ সহকর্মী জ্যাসন কেনেডি তাঁর থেকে দ্বিগুণ বেতন পাচ্ছেন। কর্তৃপক্ষের কাছে এর প্রতিবাদ জানালেও সুবিচার পাননি ক্যাট। অগত্যা চাকরিকে বুড়ো আঙুল দেখিয়েই নিজের প্রতিবাদকে তিনি পূর্ণ রূপ দেন। তাই লালগালিচায় উপস্থাপক রায়ান সিক্রেস্টকে ইভা বলেন, ‘নারী-পুরুষের ক্ষমতায়নে বিদ্যমান অসামাঞ্জস্যতার প্রতিবাদ জানাতে আমরা সবাই আজ কালো রঙের পোশাক পরেছি। এ ছাড়া যে নারীরা সবার আগে এই অন্যায়ের প্রতিবাদ জানাতে এগিয়ে এসেছিলেন, আমরা তাঁদের শ্রদ্ধা জানাই। শুরুটা তাঁরা করেছেন, আমরা সেসব সাহসী নারীর কাজ ও বার্তাটি সবার কাছে পৌঁছে দিচ্ছি মাত্র।’ এরপর তিনি রায়ানকে বলেন, ‘আমরা আশা করি, ক্যাট যে পদক্ষেপ নিয়েছে, সে বিষয়টি চ্যানেল ই! কর্তৃপক্ষ আমলে নেবে। আমরা তোমার সঙ্গে আছি ক্যাট।’ 

মিনি সিরিজে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার গ্রহণের পর নিকোল কিডম্যান জানান, তাঁর মা একজন আইনজীবী ছিলেন। নারী জাগরণে তিনি অনেক কাজ করেছেন। নিকোল ‘বিগ লিটল লাইস’-এ যেই চরিত্রে অভিনয় করে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন সেখানেও সমাজে নারীর অবহেলিত দিক গুলো উঠে এসেছে। আর মিনি সিরিজে সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রীর পুরস্কার জয়ী লরা ডার্ন বলেন, ‘ভুক্তভোগীদের শুধু সমর্থন করলেই হবে না। তাঁদের সুরক্ষা আর কাজও দিতে হবে।’

গোল্ডেন গ্লোব আসরে এবার আজীবন সম্মাননা পেয়েছেন অপরাহ্ উইনফ্রে। এর আগে কোনো কৃষ্ণাঙ্গ নারী এই পুরস্কার পাননি। মঞ্চে অপরাহর বক্তব্য উপস্থিত সবাইকে উদ্দীপ্ত করে। করতালিতে বারবার ফেটে পড়তে থাকে পুরো মিলনায়তন। অপরাহ্ উইনফ্রে বলেন, ‘আজ যত মেয়ে এই অনুষ্ঠান দেখছে, আমি তাঁদের সবাইকে জানাতে চাই, আমাদের সামনে নতুন দিন আসছে।’

আর চলচ্চিত্র বিভাগে সেরা পরিচালকের পুরস্কার প্রদানের সময় নাটালি পোর্টম্যান গোল্ডেন গ্লোব কর্তৃপক্ষকে কটাক্ষ করে বলেন, ‘পর্দায় দেখে নিন সব পুরুষ মনোনীতদের নাম।’ কারণ, গত ৭৫ বছরের ইতিহাসে বারবারা স্ট্রেইসেন্ডই একমাত্র নারী, যিনি ১৯৮৪ সালে প্রথম ও শেষবারের মতো সেরা নির্মাতা হিসেবে গোল্ডেন গ্লোব জিতেছিলেন। আর এ বছর তো সেরা নির্মাতা বিভাগে কোনো নারী মনোনয়নই পাননি। তথ্যসূত্র: গ্ল্যামার

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top