logo
news image

বড়াইগ্রামে উন্নত পুষ্টি বিনিময় বিষয়ক কর্মশালা

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম নাটোর
নাটোরের বড়াইগ্রামে উন্নত পুষ্টি নিশ্চিতকল্পে নারী ও পুরুষের সাথে গ্রাম পর্যায়ে আলোচনা ও মত বিনিময়  বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার কারিতাস রাজশাহী অঞ্চলের অধীনে চলমান সাফবিন প্রকল্প এই কর্মসূচির আয়োজন করে। প্রধান অতিথি হিসেবে জোয়ারী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা কামাল উপস্থিত ছিলেন। ১২ জানুয়ারি হতে শুরু করে জোয়াড়ী ইউনিয়নের আটটি গ্রামে পৃথকভাবে এই কর্মশালা পরিচালিত হয়। 
জোয়ারী ইউনিয়নের কুমরুল গ্রামে প্রকল্পের জেলা কর্মকর্তা তন্ময় বিশ্বাসের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মজিদ, কমিউনিটি হেলথ কেয়ার প্রভাইডার মরজিনা খাতুন, সাংবাদিক আবদুল কাদের সজল প্রমুখ।
প্রকল্প কর্মকর্তা তন্ময় বিশ্বাস জানান, ক্ষুধার অবসান, খাদ্য নিরাপত্তা ও উন্নত পুষ্টিমান অর্জন এবং টেকসই কৃষির প্রসার-এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে গত ২০শে জানুয়ারি থেকে এই প্রকল্প গ্রামের ৯০ জন ক্ষুদ্র কৃষক ও কৃষাণিদের কর্মশালার মাধ্যমে বিভিন্ন রকম সচেতন হিসেবে গড়ে তুলছে। 
পরে আলোচনায় বক্তাগণ বলেন, দেশের অধিকাংশ নারী খাদ্য গ্রহণের ক্ষেত্রে বৈষম্যের শিকার হচ্ছেন। যার ফলে তারা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই অপুষ্টিতে ভুগছেন এবং অপুষ্টিজনিত সমস্যা নিয়ে শিশু জন্ম দিচ্ছেন। নারীদের খাদ্য গ্রহণে বৈষম্য দূর করতে সমাজের প্রচলিত ধ্যান ধারণার পরিবর্তন করা প্রয়োজন। আরো বলেন যে, একজন নারী প্রতিদিন গড়ে ১২টি কাজ করেন যা জাতীয় আয়ের হিসাবে অন্তর্ভ‚ক্ত হয় না। পুরুষের এমন কাজের সংখ্যা মাত্র ৩টি। পরিবারের ও দেশের অর্থনিতির উন্নয়নে নারীদের কাজের অর্থনৈতিক মূল্য থাকা উচিত বলে সকলে একমত হওয়া দরকার। এ ছাড়া আলোচনায় খাদ্যের পুষ্টি সংরক্ষণের গুরুত্ব ও পুষ্টি সংরক্ষণের উপায়, ও বসতবাড়িতে পুষ্টিকর খাদ্য উৎপাদন বিষয়সমূহ উঠে আসে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top