logo
news image

লালপুর পদ্মা নদীতে নৌকা ডুবিতে ১৯ জন উদ্ধার একজন নিখোঁজ

নিজস্ব প্রতিবেদক।  ।  
শুক্রবার (১৮ অক্টোবর) নাটোরের লালপুরে পদ্মার চর বাহাদীপুরে কাশবন কাটতে গিয়ে নদীর পাড় ভেঙে নিখোঁজ হন একজন শ্রমিক। এ সময় ২০ জন শ্রমিক পানিতে পড়ে যান। এদের মধ্যে ১৯ জন উদ্ধার হলেও ডাবলু প্রামাণিক(৪০) নামে একজন নিখোঁজ হন।  তিনি কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার রাইটা গ্রামের মধু প্রামানিকের ছেলে। শুক্রবার ১৮ অক্টোবর গভীর রাত পর্যন্ত ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান চালান। নদীতে প্রবল শ্রোত থাকায় উদ্ধারকারী দল ব্যাপক প্রতিকূলতার মধ্যে পড়েন।  শুক্রবার গভীর রাতে তারা উদ্ধার কাজ বন্ধ ঘোষণা করেন। নদীতে প্রবল শ্রোতের কারণে উদ্ধার কাজ বন্ধ ঘোষণা করেন ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল।
শুক্রবার ১৮ অক্টোবর সকালে ঘটনা ঘটলেও বিকেলে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা সেখানে পৌঁছান। ঘটনাস্থলে পৌঁছে তারা রাজশাহী অফিসকে জানালে রাত সাড়ে সাতটায় একদল ডুবুরি সেখানে পৌঁছান।
লালপুর ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার উপজেলার চরাঞ্চলে কাশবন কাটতে গিয়ে নদীর পাড় ভেঙে কাসবন মালিকসহ ২০ জন শ্রমিক পাড় ভেঙে মাটি চাপা পড়ে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর ১৯ জনকে উদ্ধার করা হয়। অন্য একজনকে উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে একপর্যায়ে ফায়ার  সার্ভিসে খবর দিলে তারা বিকাল তিনটার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে ডুবুরি আহ্বান করেন।
লালপুর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন অফিসার রুহুল আমিন জানান, নদীর পানিতে প্রচন্ড স্রোত ও অন্ধকার পরিবেশ থাকায় উদ্ধারকারী সদস্যরা হুমকির মধ্যে পড়েন।  সম্ভাবনা না থাকায় শুক্রবার গভীর রাতে উদ্ধার কাজ বন্ধ করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে লালপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সেলিম রেজা জানান, পদ্মার প্রবল শ্রোত আর প্রতিকূল পরিবেশের কারণে উদ্ধার কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top