logo
news image

বড়াইগ্রামে ১ হাজার মেট্রিকটন উদ্বৃত্ত মাছ উৎপাদন

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম নাটোর
নাটোরের বড়াইগ্রামে মাছের মোট চাহিদা যেখানে ৫ হাজার ৫শ’ ২ মেট্রিক টন সেখানে উপজেলায় ২০১৮-২০১৯ বছরে উৎপাদন হয়েছিল ৫ হাজার ৬শ ৯ মেট্রিক টন। এতে উদ্বৃত্ত হয়েছে ১ হাজার ৭ মেট্রিক টন। বুধবার মৎস্য সপ্তাহ ২০১৯ উদ্যাপন উপলক্ষে উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তার দপ্তরে আয়োজিত সাংবাদিকদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় এই তথ্য জানানো হয়।
এছাড়া পানি সংকট ও সঠিক রক্ষনাবেক্ষনের অভাবে চলনবিল সহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক জলাশয় থেকে দেশীয় প্রজাতির মাছ হারিয়ে যাচ্ছে বলে উপজেলা মৎস্য দপ্তর থেকে জানানো হয়। তবে বদ্ধ জলাশয়ে কার্প জাতীয় মাছের উৎপাদন বৃদ্ধি পাওয়ায় এ বছর উপজেলায়  প্রায় ১ হাজার ৭ মেট্রিক টন উদ্বৃত্ত মাছ উৎপাদন হয়েছে বলে দাবি করেছে দপ্তরটি।
‘মৎস্য সেক্টরের সমৃদ্ধি, সুনীল অর্থনীতির অগ্রগতি’ প্রতিপাদ্য নিয়ে ১৭ জুলাই থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত চলবে এই সপ্তাহের কর্মসূচি। মৎস্য সপ্তাহের অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে মৎস্য পোনা অবমুক্তকরণ, মূল্যায়ন সভা, শেষ্ঠ খামারীদের পুরষ্কার প্রদান, মৎস্য আইন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অভিযান পরিচালনা, প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন এবং মৎস্য চাষে উদ্ভুদ্ধ করণ সভা।
 আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডা. কাজী আশরাফুল ইসলাম। সাংবাদিকদের বিভিন্ন তথ্য সরবরাহ করেন সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ জাহাঙ্গীর আলম। এসময় মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আব্দুল খালেক, সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মোবাশ্বির হোসেন বিপ্লব, এফএওগণ উপস্থিত ছিলেন।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top