logo
news image

বড়াইগ্রামে ঈদের ছুটিতে সরকারী গাছ কর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম, নাটোর
বড়াইগ্রামে ঈদের ছুটিতে জোর পূর্বক বনায়ন কর্মসূচীর সরকারী গাছ কর্তন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার উপজেলা পারকোল উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে এই গাছ কর্তন করা হয়। জাতীয় বনবিভাগের বনানায়র কর্মসূচীতে পারকোল উচ্চ বিদ্যালয় এই গাছ গুলো রোপণ করে। অভিযোগ উঠেছে পারকোল উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও স্থানীয় ওয়ার্ড সদস্য ইদ্রিস আলী ও তার ভাই বিদ্যালয়ের শিক্ষক ফারুখ হোসেন এই গাছ কেটে নিয়েছেন। 
প্রধান শিক্ষক আব্দুস সোবাহান জানান, প্রায় ১০ বছর আগে বন বিভাগের সাথে চুক্তি মাধ্যমে বিদ্যালয় কতৃপক্ষ পারকোল বাজার থেকে পারকোল গ্রামের পশ্চিম পার্শ পর্যš রাস্তার দুই পার্শে মেহগণীর গাছ গুলো রোপণ করে। এখন অনেক মোটা হয়েছে। হঠাৎ করে আমি ফোনের মাধ্যমে জানতে পারি যে পারকোল উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও পারকোল গ্রামের মৃত ইন্তাজ আলীর ছেলে ফারুখ হোসেন (৫০), মৃত ছহির উদ্দিনের  ছেলে ফেরদৌস হোসেন (২৮), মৃত আলমের ছেলে রফিকুল ইসলাম (২২), আমজাদ আলীর ছেলে আল আমিন ১টি মেহগণীর গাছ কাটছে। আমি উপস্থিত হয়ে গাছ কাটতে নিশেধ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অবহীত করি। গাছটির আনুমানিক মূল্য ১৫ হাজার টাকা।
প্রতিবেশী আব্দুল বারেক বলেন, গাছটির সাথেই আমার বাড়ী। হঠাৎ করে দেখি গাছ ফারুখ মাস্টারসহ কয়েক জন গাছ কাটছে।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আনোয়র পারভেজ বলেন, খবর পেয়েই নায়েবকে পাঠানো হয়েছে। গাছটি উপজেলা ভুমি অফিস চত্ত্বরে রাখা হয়েছে। ঈদের ছুটি শেষে আইনানুগ ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।
বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি, স্থানীয় ইউপি সদস্য ও ফারুখ হোসেনের ভাই ইদ্রিস আলী বলেন, প্রধান শিক্ষকের মৌখিক অনুমোদন নিয়ে পারকোল পশ্চিম পাড়া জামে মসজিদের কাজ করার জন্য গাছ কাটা হয়েছে।
আব্দুস সোবাহান বলেন আমি গাছের মালিক যে আমি অনুমোদন দিব। আমি এ বিষয়ে কিছুই জানিনা।
এই ঘটনায় ফারুখ হোসেন ক্ষুদে বার্তা দিয়েও তার মতামত নেওয়া সম্ভব হয়নি।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top