logo
news image

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে দ্বিতীয় ইউনিটে ‘কোর ক্যাচার’ স্থাপনের কার্যক্রম শুরু

বপন কুমার কুন্ডু, ঈশ্বরদী (পাবনা) -
রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের দ্বিতীয় ইউনিটে অন্যতম স্বয়ংক্রিয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা ‘কোর ক্যাচার’ স্থাপনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। প্রকল্পের জেনারেল ঠিকাদার রাশিয়ার এটমস্ত্রয় এক্সপোর্ট (এএসই) নির্ধারিত সময়ের এক মাস আগেই কোর ক্যাচার স্থাপন করা হচ্ছে।  প্রকল্পের সাইট ইনচার্জ রুহুল কুদ্দুস এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, প্রথম ইউনিটে কোর ক্যাচার স্থাপনের কাজ শুররু হয় ২০১৮ সালের ১৮ আগস্ট।
এএসই’র ভাইস প্রেসিডেন্ট সের্গেই লাসতোচকিন জানান, “এটি স্বয়ংক্রিয় নিরাপত্তা ব্যবস্থার অন্যতম মূল অংশ । যা প্রকল্পের দ্বিতীয় ইউনিটেও স্থাপন করা হচ্ছে। এযাবত প্রকল্পের নির্মাণ কাজে ব্যবহৃত ডিভাইস বা যন্ত্রপাতির মধ্যে এটিই হচ্ছে প্রকল্পে স্থাপিত সর্ববৃহৎ ডিভাইস। কর্মরত রাশিয়ান প্রকৌশলীদের সম্বনিত প্রচেষ্টার ফলেই নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই কাজটি শুরু করা সম্ভব হয়েছে বলে তিনি জানিয়েছেন।
প্রকল্প পরিচালক ড. সৌকত আকবর জনান, প্রথম ও দ্বিতীয় ইউনিটের চলমান নির্মাণ কাজ নির্ধারিত সিডিউল অনুযায়ীই এগিয়ে চলছে।
জানা যায়, রুশ বিশেষজ্ঞদের ডিজাইনকৃত কোর ক্যাচার একটি কোণাকৃতির ডিভাইস যা রিয়্যাক্টর কোরের নিচে স্থাপন করা হয়ে থাকে। কোর ক্যাচারে থাকে বিশেষ পদার্থ। প্রয়োজনকালে ডিভাইসটিতে সকল গলিত কোর বস্তু ধারণ করে সম্পূর্ণভাবে আবদ্ধ করে ফেলবে। এতে রেডিয়েশন বাইরে আসার পথ রুদ্ধ হয়ে যাবে। যেহেতু স্বয়ংক্রিয় নিরাপত্তা ব্যবস্থার একটি অংশ, বিধায় এটির পরিচালনা কার্যক্রমে মানুষের কোন নির্ভরতার প্রয়োজন নেই। প্রাকৃতিক নিয়ম অনুসরণ করেই এটি কাজ করবে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প সাইটের বৈশিষ্টসমূহ বিবেচনা করেই কোর ক্যাচারের ডিজাইন করা হয়েছে। উন্নত হাইড্রো-ডাইনামিক ও শক প্রতিরোধ গুণাবলি সম্পন্ন হওয়ায় এটি অধিকমাত্রায় ভূমিকম্প সহিষ্ণু। বাংলাদেশের প্রোপটে কোর ক্যাচারটিতে বণ্যা প্রতিরোধ ব্যবস্থাও যুক্ত করা হয়েছে।
উল্লেখ্য,রুশ আর্থিক ও কারিগরি সহায়তায় নির্মীয়মান রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে  প্রতিটি ১২০০ মেগাওয়াট উৎপাদন মতাসম্পন্ন ২টি ইউনিট থাকবে। বিশ্বের সর্বাধুনিক থার্ড প্লাস প্রজন্মের ভিভিইআর- ১২০০ রিয়্যাক্টর স্থাপন করা হচ্ছে ইউনিটগুলোতে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য