logo
news image

রুশ-বাংলাদেশ যৌথ সমন্বয় কমিটির সভা

ঈশ্বরদী (পাবনা) সংবাদদাতাঃ
রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প সংক্রান্ত রুশ-বাংলাদেশ যৌথ সমন্বয় কমিটির চতুর্থ সভা গত ৬ মার্চ  রাজধানীর লা মেরিডিয়ান হোটেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মাণের বর্তমান অবস্থা এবং নির্ধারিত সময়ে প্রকল্পের কাজ সম্পন্ন করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। রসাটমের গণসংযোগ বিভাগ ৯ই মার্চ প্রেরীত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এই তথ্য জানা গেছে। এসময় উভয় পক্ষই প্রকল্পের কাজের অগ্রগতি নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।
সভায় রুশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন রুশ রাষ্ট্রীয় পারমাণবিক শক্তি কর্পোরেশন রসাটমের প্রথম উপ- মহাপরিচালক, অপারেশনাল ম্যানেজমেন্ট এবং রূপপুর প্রকল্পের জেনারেল কন্ট্রাক্টর এএসই গ্রুপ অব কোম্পানীজের প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্দা লোসকিন। বাংলাদেশের প্রতিনিধি দলে নেতৃত্বে ছিলেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। বাংলাদেশে নিযুক্ত রুশ রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্দার ইগনাতভসহ উভয় দেশের উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা সভায় অংশগ্রহণ করেন।
জনশক্তি প্রশিক্ষণ এবং বিভিন্ন সরঞ্জাম ও যন্ত্রপাতির ডেলিভারী সংক্রান্ত বিষয়গুলো নিয়েও সভায় বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। যৌথ সমন্বয় কমিটির সিদ্ধান্তগুলো অনুমোদিত চুড়ান্ত প্রটোকলে নথিভূক্ত করা হয়।
রুশ আর্থিক ও কারিগরী সহায়তায় নির্মীয়মান রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে ৩+ প্রজন্মের ভিভিইআর ১২০০ রিয়্যাক্টর ভিত্তিক দুটি ইউনিট স্থাপন করা হচ্ছে, প্রতিটির উৎপাদন ক্ষমতা ১২০০ মেগাওয়াট। প্রথম কংক্রিট ঢালাইয়ের মাধ্যমে উভয় ইউনিট নির্মাণের সক্রিয় অধ্যায় ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। উভয় ইউনিটে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নিষ্ক্রীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা- কোর ক্যাচার স্থাপনের কাজও এগিয়ে চলছে। বর্তমানে উভয় বিদ্যুৎ ইউনিটের মূল ভবন ও কাঠামো নির্মাণ করা হচ্ছে। আশা করা হচ্ছে যে আগামী ২০২৩ সাল নাগাদ প্রথম ইউনিট এবং ২০২৪ সালে দ্বিতীয় ইউনিট বিদ্যুৎ উৎপাদনে যাবে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top