logo
news image

বড়াইগ্রামে স্কুলছাত্রী ধর্ষণের স্বীকার

নিজস্ব প্রতিবেদক, বড়াইগ্রাম নাটোর
নাটোরের বড়াইগ্রামে বোনের বাড়িতে বেড়াতে এসে অষ্টম শ্রেণীর একছাত্রী ধর্ষণের স্বীকার হয়েছেন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার বিকেলে কনক বিশ্বাস (২১) নামে এক কলেজছাত্রের নামে ধর্ষণ মামলা হয়েছে।  কনক উপজেলার গোপালপুর ইউনিয়নের গড়মাটি কদমতলা গ্রামের তালেব বিশ্বাসের ছেলে এবং রাজাপুর স্নাতক কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র।
মামলা ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, নির্যাতিত ওই ছাত্রী গত শুক্রবার তার বাবা সাথে গড়মাটি কদমতলা গ্রামে দুলাভাই ফিরোজ হোসেনের বাড়িতে বেড়াতে আসেন। ফিরোজ ঢাকায় প্রাণ কম্পানির একটি পদে চাকুরী করেন। বাড়িতে বোন একা থাকায় ছোট বোনকে রেখে তার বাবা বাড়ি ফিরে যান। সোমবার সন্ধায় ফিরোজের বৈমাত্রিক ভাই কনক বিশ্বাস সকলের অগোচরে ওইছাত্রীর মুখ চেপে প্রতিবেশী রতনের ঘরে নিয়ে ধর্ষণ করে। একপর্যায় তার চিৎকারে প্রতিবেশীসহ ছাত্রীর বড়বোন এসে উদ্ধার করে। 
খবর পেয়ে মঙ্গলবার সকালে ওইছাত্রীর বাবা কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার নাসিরুল সরদার মেয়েকে নিয়ে বড়াইগ্রামের ইউএনও আনোয়ার পারভেজের অফিসে আসেন। সেখান থেকে ইউএনও তাদেরকে থানায় পাঠান এবং ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা গ্রহনের নির্দেশ দেন।
বড়াইগ্রাম থানার ওসি দিলিপ কুমার দাস জানান, এঘটনায় নির্যাতিতের বাবা বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফারের জন্য পুলিশি অভিযান শুরু হয়েগেছে। এছাড়া ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষার প্রক্রিয়া চলছে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top