logo
news image

কুমিল্লায় কয়লার ট্রাক উল্টে ১৩ ঘুমন্ত শ্রমিক নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা।  ।  
কুমিল্লায় কয়লার ট্রাক উল্টে ১৩ ঘুমন্ত শ্রমিক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ৫ জন। শুক্রবার  (২৫ জানুয়ারি) ভোরে জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার গোলপাশা ইউনিয়নের নারায়নপুর এলাকায় ব্রিক ফিল্ডের পাশে এ ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চৌদ্দগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল মাহফুজ।
ওসি আবদুল্লাহ আল মাহফুজ আরও জানান, ভোর সাড়ে ৫টার ব্রিক ফিল্ডের জন্য আনা একটি ট্রাক থেকে কয়লা আনলোড করার সময় হঠাৎ তা উল্টে গিয়ে ফিল্ডের লেবার শেডের ঘুমন্ত শ্রমিকদের উপর পড়ে। এতে সেখানে চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই ১৩ শ্রমিকের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে স্থানীয় লোকজন, ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে উদ্ধার অভিযান শুরু করে। ট্রাকের চালক ও হেলপার পালাতক রয়েছে।
নিহত শ্রমিকেরা হলেন—নীলফামারী জেলার জলঢাকা উপজেলার নিজপাড়া গ্রামের সুরেশ চন্দ্র রায়ের ছেলে রঞ্জিত চন্দ্র রায় (৩০), মানিক চন্দ্র রায়ের ছেলে তরুণ চন্দ্র রায় (২৫), জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে মো. সেলিম (২৮), রামপ্রসাদের ছেলে বিপ্লব (১৯), কিশোর চন্দ্র রায়ের ছেলে শংকর চন্দ্র রায় (২২), অমর চন্দ্র রায়ের ছেলে দীপু চন্দ্র রায় (১৯) ও কামিক্ষ্যা চন্দ্র রায়ের ছেলে অমিত চন্দ্র রায় (২০), একই উপজেলার পাঠানপাড়া গ্রামের নুর আলমের ছেলে মোরসালিন (১৮) ও ফজলুল করিমের ছেলে মো. মাসুম (১৮), শিমুলবাড়ি গ্রামের মনোরঞ্জন চন্দ্র রায় (১৯) এবং রাজবাড়ী গ্রামের দীনেশ চন্দ্র রায়ের ছেলে মৃণাল চন্দ্র রায় (২১), খোকা চন্দ্র রায়ের ছেলে বিকাশ চন্দ্র রায় (২৮) ও ধনু চন্দ্র রায়ের ছেলে কনক চন্দ্র রায় (৩৫)।
নিহত ব্যক্তিরা সবাই মেসার্স কাজী অ্যান্ড কোং ইটভাটার শ্রমিক ছিলেন। দুর্ঘটনার সময় তাঁরা মেসে ঘুমন্ত অবস্থায় ছিলেন।
কুমিল্লার জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শন শেষে জেলা প্রশাসক প্রত্যেক নিহত শ্রমিকের পরিবারকে ২০ হাজার এবং ব্রিক ফিল্ডের মালিক ১০ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করেন।
কুমিল্লা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন, দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। দুর্ঘটনা কি কারণে ঘটেছে তা ক্ষতিয়ে দেখা হবে।  
উল্লেখ্য, কুমিল্লার এই ঘটনাসহ ৭০০ দিনে সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ৬ হাজার ১০৯ জন নিহত হয়েছে।

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top