logo
news image

ঈশ্বরদীতে ধনুকারদের ব্যস্ততা বেড়েছে

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঈশ্বরদী (পাবনা)।  ।  
পাবনার ঈশ্বরদীতে শীতল বাতাসের সাথে রাতে হালকা কূয়াসা ও শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়াতে ধনুকার সম্প্রদায় ব্যস্ত সময় পার করেছে। শীতের তীব্রতা বেড়ে যাওয়ার কারনে ঈশ্বরদী উপজেলার ধনুকার সম্প্রদায় ব্যবসায়িদের এখন সুদিন চলছে। ধনুকার সম্প্রদায় লেপ-তোষক, জাজিম তৈরির কাজে এখন মহাব্যস্ত। লেপ-তোষক দোকানের মালিক ও শ্রমিকদের নাওয়া-খাওয়ার কোন সময় নেই। সেলাইয়ের কাজে তুলোধুনতে ব্যস্ত মালিক শ্রমিকগণ।
শীত মৌসুমে ক্রেতারা লেপ-তোষকের দোকানগুলোতে আগে থেকে পছন্দমত লেপ-তোষক তৈরির অর্ডার দিয়ে বায়না  করে থাকেন। ধনুকার সম্প্রদায় ব্যবসায়িরা এবার ভালো মুনাফার জন্য বেশি বিক্রি করার আশায় দিন-রাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। গত কিছু দিন ধরে শীতল বাতাসের সাথে রাতে শীতের হাওয়া পড়ায় ধনুকার সম্প্রদায়ের মানুষ গুলোর এখন চোখে ঘুম নেই। কন কনে ঠান্ডা শীত পড়ায় এখন গভির রাতে কাঁথা-কম্বল নিয়ে ঘুমাতে হয়। কন কনে ঠান্ডা শীত ঠেকাতে লেপ- তোষক, কাঁথা-কম্বল হলো মানুষের ভরসা।
জানা যায়, ঈশ্বরদী বাজার, শহরের কলেজ রোড, আলহাজ্ব মোড়, আড়ামবাড়িয়া বাজার, মুলাডুলি বাজার, দাশুড়িয়া বাজার, পাকশী বাজার, আওতাপাড়াসহ উপজেলার বিভিন্ন ছোট বড় হাট-বাজার গুলোতে জাজিম, বালিশ, লেপ-তোষক তৈরি ও বিক্রির কাজে শতাধিক ধনুকার সম্প্রদায় নিয়োজিত রয়েছে।
বাজার ঘুরে দেখা গেছে ক্রেতা সাধারণ লেপ-তোষক তৈরির জন্য ভিড় করছেন। এ জন্য ধনুকার সম্প্রদায় ব্যবসায়িরা এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। এবার শীত মৌসুমে শীত বেশি পড়াতে ক্রেতারা লেপ তৈরির অর্ডার দিয়ে বায়না করছেন বলে ব্যবসায়িরা এ কথা জানান।
ব্যবসায়ি নবাব আলী ও চাঁদ রশিদ জানান, শীত মৌসুম সিজনে লেপ-তোষক তৈরি ও বিক্রি বেশি হয়। অনেক ক্রেতা লেপ-তোষক ও জাজিম তৈরির অর্ডার দিয়ে বায়না দিচ্ছেন। তাছাড়া বছরের অন্যান্য দিনে বিয়ে সাদি হলে বিক্রি হয়। বিক্রির জন্য লেপ-তোষক ও বালিশ তৈরি করে রাখি।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top