logo
news image

ঘুরতে গিয়ে চুল–ত্বকের যত্নের টিপস্

চলো না ঘুরে আসি অজানাতে…এই বলেই যখন-তখন বেরিয়ে পড়া আপনার অভ্যাস। সেই আগ্রহে লাগাম টানতে বলছে না কেউই, কিন্তু এভাবে কয়েক দিন ঘুরে বেড়ানো শেষে যে শুষ্ক চুল আর মলিন ত্বক নিয়ে ঘরে ফেরেন, সেটা থেকে তো বাঁচার পদ্ধতি বের করতে হবে, নাকি?

বেড়াতে গিয়ে সারা দিনই ঘোরাঘুরিতে ব্যস্ত থাকা হয়। ফলে ত্বক ও চুলের খুব বেশি যত্নআত্তির দিকে নজরও দেওয়া যায় না। তাই ফেরার পরে বারোটা বাজে ত্বক ও চুলের। হারমনি স্পার আয়ুর্বেদিক রূপবিশেষজ্ঞ রাহিমা সুলতানা বললেন, বাইরে ঘুরতে গেলে অনেক সময় ধুলাবালুতে ত্বকটা অনেক মলিন হয়ে পড়ে। রোদে ধুলায় অনেকের র‌্যাশ দেখা দেয়। আবার কারও বা ত্বক বার্ন হয়ে যাওয়ার সমস্যা থাকে। সে জন্য ট্যুরে গেলে অবশ্যই সঙ্গে রাখতে হবে ময়েশ্চারাইজার, সানস্ক্রিন, ডে নাইট ক্রিম। ট্যুরটা বেশি লম্বা হলে একটা স্ক্রাবারও সঙ্গে নিতে হবে। তবে সপ্তাহে একদিনের বেশি স্ক্রাবার ব্যবহারের দরকার নেই। খেয়াল রাখবেন, ঘুরতে গেলে রোদটা যেন ত্বকে সরাসরি না পড়ে। সে ক্ষেত্রে ছাতা বা হ্যাট রাখতে পারেন। সারা দিন ঘুরে এসে রাতে মুখ পরিষ্কার করে অবশ্যই ময়েশ্চারাইজার লাগাতে হবে। পাশাপাশি ভ্রমণের সময় অনেক পানি, ডাবের পানি, ফল, ফলের সালাদ—এসব খেতে হবে।

ত্বকের পাশাপাশি নজর দিতে হবে চুলের দিকেও। রূপবিশেষজ্ঞ তানজিমা শারমিন জানালেন চুলের পরিচর্যার কথা। বললেন, আবহাওয়া আর পানির পরিবর্তনের কারণে ভ্রমণে গেলে চুল হয়ে পড়ে রুক্ষ। ব্যস্ততার কারণে সে সময় চুলের বাড়তি যত্ন নেওয়াও সম্ভব হয় না। সমাধান আনতে ভ্রমণে সঙ্গে করে শ্যাম্পু, কন্ডিশনার আর তেল নিয়ে যান। চুলে তেল দিয়ে এক ঘণ্টা রেখে শ্যাম্পু করে ফেললেই হবে। শ্যাম্পু শেষে কন্ডিশনার ব্যবহার করতে হবে। ব্যস, তাতেই হবে।

তবে শুধু মলিনতা বা শুষ্কতাই নয়, রোদে কারও কারও ত্বক পুড়ে যায় বা ধুলায় র‌্যাশ বের হয়। সেগুলোর সমাধান জানালেন চর্মরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক সৈয়দ আফজালুল করিম। তিনি বললেন, বাইরে গেলে সমস্যাগুলো তৈরি হয় বাতাস, ধুলা আর রোদ থেকে। চেষ্টা করতে হবে, এসব যেন সরাসরি ত্বকে না লাগে। সে জন্য শরীরঢাকা পোশাক পরতে হবে। ব্যবহার করতে হবে সানস্ক্রিন। পানির কাছে গেলে অবশ্যই সানস্ক্রিন নিতে হবে। পানিতে রোদের প্রভাব দ্বিগুণ হয়। শীত ও গরমকালের সানস্ক্রিন আলাদা হয় এবং এর কার্যক্ষমতা তিন ঘণ্টার বেশি থাকে না। অন্তত ৩৫ প্লাস পাওয়ারের সানস্ক্রিন রোদে যাওয়ার দশ মিনিট আগে লাগান। ধুলাবালু ও সরাসরি বাতাস থেকে বাঁচতে শরীরের খোলা জায়গায় ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম লাগাতে হবে। বেড়াতে গিয়ে ত্বক পরিষ্কার করতে অতিরিক্ত সাবান ব্যবহার না করাই ভালো। এদিকে ত্বকে সান বার্ন বেশি হলে ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম লাগানোর পরামর্শ দিলেন এই বিশেষজ্ঞ। বেশি জ্বালাপোড়া করলে ত্বকে পানি দিয়ে তারপর ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম দিতে হবে। সানবার্ন হলে মাইল্ড স্টেরয়েড ক্রিমও দিতে পারেন। দিনে দুবার করে দুই-তিন দিন ব্যবহার করলেই এই সমস্যা চলে যাবে। তবে যদি ত্বকে ফোসকা পড়ে যায় তখন অবশ্যই বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।
ছোট ছোট সমস্যার সমাধান তো হলো। এখন আর বেরিয়ে পড়তে বাঁধা কোথায়? বেরিয়ে পড়ুন সেখানে যেখানে নদী এসে থেমে গেছে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top