logo
news image

নাটোরে এসিডে ঝলসালো এক গৃহবধু

নিজস্ব প্রতিবেদক, নাটোর।  ।  
নাটোর সদর উপজেলার হালসা এলাকায় রাশিদা বেগম নামে এক গৃহবধু এসিড সন্ত্রাসের শিকার হয়েছে। শনিবার (২৭ অক্টোবর) ১১টার দিকে হালসা ইউনিয়নের আওরাইল এলাকায় এই ঘটনা ঘটে। মুমুর্ষ অবস্থায় গৃহবধুকে নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
হাসপাতাল ও গৃহবধুর স্বজনরা জানান, শনিবার রাত ১১টার দিকে সদর উপজেলার হালসা ইউনিয়নের আওরাইল গ্রামের হাসেন আলীর স্ত্রী নিজ বাড়িতে ঘুমিয়ে ছিলেন। এসময় ঘরের দরজা খোলা থাকলেও তার স্বামী বাড়িতে ছিলো না। এসময় এসিড জাতীয় ধাতব পদার্থ গৃহবধুকে ছুঁড়ে মারা হয়। এসময় গৃহবধুর বাম হাত এবং পিঠের পুরো অংশ পুরে যায়। পরে পরিবারের লোকজন গুরুতর অবস্থায় রাতেই নাটোর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।
গৃহবধু রাশিদা বেগম বলেন, রাত সাড়ে ৯টার দিকে খাওয়া-দাওয়ার পর ঘুমিয়ে পড়ি। এসময় ঘরের দরজা খোলা ছিল। পরে হঠাৎ করে এসিড ছুড়েঁ মারলে শরীরের চামড়া পুরো যায়। তবে কে বা কাহারা মেরেছে বুঝতে পারিনি।
নাটোর সদর হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের চিকিৎসক ডা. শহিদুল ইসলাম সুমন বলেন, এসিড জাতীয় ধাতব পদার্থ দিয়ে গৃহবধু রাশিদা বেগমকে ঝলসে দেওয়া হয়েছে। শরীরের অন্তত ৯শতাংশ ঝলছে গেছে। আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছে সুচিকিৎসা দেওয়ার জন্য। তবে পুরোপুরি সেড়ে উঠতে কিছুদিন সময় লাগবে।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top