logo
news image

বিটিভির ইনোভেশান পুরস্কার পেলেন মাসউদুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদক।  । 
বিটিভির ইনোভেশান পুরস্কার, ২০১৭ পেলেন লেখক মাসউদুল হক।  মঙ্গলবার (১৬ অক্টোবর) বিটিভি ভবনে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।  বিটিভিতে সরকারি কোন বরাদ্দ ছাড়াই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম চালুর উদ্যোগ নেওয়ায় তাকে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।  যার ফলে ফেসবুক ও ইউটিউবে বিটিভির অনুষ্ঠান এবং আর্কাইভে পূর্বের অনুষ্ঠানমালা নতুন আঙ্গিকে দেখা সম্ভব হচ্ছে।  মাসউদুল হক বিটিভির জিএম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।  বর্তমানে তিনি জাতীয় সংসদে উপসচিব পদে কর্মরত আছেন। 
পুরস্কার পাবার পর মাসউদুল হক তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন, চাকুরি জীবনের দ্বিতীয় স্বীকৃতি হিসেবে পেলাম - ইনোভেশান পুরস্কার, ২০১৭। প্রথম পুরস্কারটি ছিল ‘ শুদ্ধাচার পুরস্কার-২০১৬’। সম্ভবত কর্মক্ষেত্রে সাফল্যের জন্য এখন পর্যন্ত প্রচলিত দুটি পুরস্কারই স্বল্পতম সময়ের মঁধ্যে অর্জন করে ফেললাম। মাঝে মাঝে হতাশা গ্রাস করে কিন্তু এই স্বীকৃতিগুলো আবার সংগ্রাম করতে উৎসাহ যোগায়। ধন্যবাদ বিটিভি’র ডিজি জনাব হারুনর রশিদ ও পরিচালক (প্রশাসন) জনাব শাখাওয়াত হোসেন। সব সময়ের মতো পাশে থাকার জন্য।
তিনি আরো জানান, অনেকেই জানতে চেয়েছেন কেন পেলাম ইনোভেশান পুরস্কার। একটি উদ্ভাবনের জন্য আমাকে এই সম্মাননা দেয়া হয়নি। অনেকগুলি উদ্ভাবনের স্বীকৃতি ছিল এই পুরস্কার। বিটিভি’র জিএম থাকাকালীন যে সব উদ্ভাবনী কাজের সাথে জড়িত ছিলাম তার কয়েকটি তুলে ধরছি :
১. অতিরিক্ত কোন অর্থ বরাদ্দ না নিয়ে বিটিভির নিয়মিত বাজেট থেকে অর্থ সংস্থান করে বিটিভি’তে আলাদা ভাবে ‘সোস্যাল মিডিয়া উইং ‘ খোলা হয়। ফলে দর্শকরা এখন বিটিভির পাশাপাশি ফেসবুক এবং ইউটিউবেও বিটিভি’র অনুষ্ঠান দেখতে পারেন।
২. বিটিভির পুরনো অনুষ্ঠানগুলি ছিল বেটা ফরম্যাটে। সেই অনুষ্ঠানগুলিকে অল্প কিছু যন্ত্র সংগ্রহ করে ডিজিটাল ফরম্যাটে রুপান্তর করা হয়েছে। ফলে পুরনো অনুষ্ঠানগুলো সংরক্ষণের পাশাপাশি বিটিভি’র ইউটিউব চ্যানেলে তা প্রচার করা সম্ভব হচ্ছে । ইউটিউব চ্যানেলে ‘ কোথাও কেউ নেই ‘ নাটক প্রচার ছিল সেই পরিকল্পনার প্রথম পদক্ষেপ।
৩.আর্থিক ব্যবস্থাপনা উন্নয়নের মাধ্যমে বিটিভি প্রথমবারের মতো উদ্ধৃত্ত বাজেটের দেখা পায়। সরকারি কোষাগারে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা ফেরত দিতে সক্ষম হয়।
৪. টেলিভিশনের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো পাঁচ মাত্রিক অনুষ্ঠান প্রচার শুরু হয়। ‘সুপ্রভাত বাংলাদেশ ‘ নামের লাইভ সংগীতানুষ্ঠানটি একই সাথে রেডিও ,ফেসবুক, এবং ইউটিউবে দেখা সম্ভব হয়ে ওঠে।
ইত্যাদি কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ এই পুরস্কার পেয়েছি।
মাসউদুল হক সম্মানীয় পুরস্কারে ভূষিত হওয়ায় দৈনিক প্রাপ্তি প্রসঙ্গ পরিবারের পক্ষ থেকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। 

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top