logo
news image

বন্ধ হলো রাজশাহীর উপহার

নিজস্ব প্রতিবেদক, রাজশাহী।  ।  
শেষ পর্যন্ত বন্ধই হয়ে গেল রাজশাহী মহানগরীর একমাত্র সিনেমা হল ‘উপহার’। ‘নাকাব’ সিনেমা প্রদর্শনের মধ্য দিয়েই শেষ হয়েছে ঐতিহ্যবাহী এই প্রেক্ষাগৃহের পথচলা। বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) রাত ১২টা পর্যন্ত চলে এর শেষ শো।
উপহার সিনেমা হলের ম্যানেজার তপন কুমার দাস গণমাধ্যমকে বলেন, মালিকের নির্দেশনা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার রাত ৯টা থেকে ১২টা পর্যন্ত এ হলের শেষ শো চলে। এরপর হলটি বন্ধ হয়ে যায়। রাতেই হল বন্ধের নোটিশ দিয়ে দেয়া হবে বলে জানান উপহারের এই কর্মকর্তা।
তিনি বলেন, মন্দা ব্যবসার কারণেই রাজশাহীর সিনেমা হলগুলো একের পর এক বন্ধ হয়ে গেছে। এর অংশ হিসেবেই উপহারও বন্ধ হয়েছে।
উপহার সিনেমা হলের দারোয়ান জাহাঙ্গীর আলম বলেন, হলটি যখন প্রথম চালু হয়, তখন থেকেই এখানে কাজ করছি। হঠাৎ শুনতে পাই, হলটি বন্ধ হয়ে যাবে। তখন থেকেই চিন্তায় আছি। কারণ, অন্য কোনও কাজ করার অভিজ্ঞতা নেই এবং ব্যবসা করার মতোও অর্থ নেই।
সিনেমা হলটি বন্ধের ঘোষণার পর থেকেই রাজশাহীর চলচ্চিত্র সংসদসহ সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো মানববন্ধন, অবস্থানসহ বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে আসছে। উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, রাজশাহী সদর আসনের সংসদ সদস্য, ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি ডা. এফ এম এ জাহিদ, রাজশাহী ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি ও চলচ্চিত্রনির্মাতা আহসান কবীর লিটন, ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটি রাজশাহীর সাধারণ সম্পাদক এবং সিনেমাটোগ্রাফার ও অভিনেতা মাহমুদ হোসেন মাসুদসহ অনেক গুণীজন বিভিন্ন প্রতিবাদ কর্মসূচিতে অংশ নেন।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক এবং বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদের সভাপতি ড. সাজ্জাদ বকুল বলেন, বিভাগীয় একটি শহরে একটি সিনেমা হল থাকবে না, এটা একটি অশনিসংকেত।
ঋত্বিক ঘটক ফিল্ম সোসাইটির সভাপতি ডা. এফ এম এ জাহিদ বলেন, এভাবে সব সিনেমা হল ভেঙে ফেলা হলে, নতুন প্রজন্ম সিনেমা হল আর কখনও চিনবে না, সিনেমার সঙ্গে পরিচয়ও ঘটবে না। তাই ঐতিহ্য হিসেবে হলেও বিভাগীয় শহর রাজশাহীতে একটি সিনেমা হল বাঁচিয়ে রাখতে হবে। এজন্য সমাজের দায়িত্ববান লোকদের এগিয়ে আসার অনুরোধ করছি।
অধ্যাপক হাসান আজিজুল হক এই হলে তাঁর ছবি দেখার স্মৃতিচারণ করে হলটিকে রক্ষায় সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।
নগরবাসীর বিনোদন নিশ্চিত করতে রাজশাহী সিটি ভবনের জায়গায় নির্মাণাধীন সিটি সেন্টারে হবে আধুনিক সিনেকমপ্লেক্স, যা ৯ বছরেও সম্পূর্ণ হয়নি। তবে আবারও এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন নির্বাচিত হওয়ায় সব কাজেই গতি ফিরে এসেছে। তাই আগামী এক বছরের মধ্যেই এই পুরো প্রকল্পটি শেষ হবে বলে আশা করছেন রাজশাহী সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী আশরাফুল হক। আর নগরবাসীর বিনোদনের কথা মাথায় রেখেই চুক্তি অনুযায়ী সিটি সেন্টারের ভবনটিতে সিনেকমপ্লেক্স রাখার কথা জানান তিনিও।
এদিকে, ‘নাকাব’ সিনেমার মধ্যদিয়ে ৪৩ বছরের দীর্ঘ যাত্রার ইতি টানলো উপহার। শেষ প্রদর্শনীও ছিল হাউসফুল। সিনেমা দেখে ফেরার পথে অনেকেই অতীতের স্মৃতিচারণ করে গেছেন। ১৯৭৪ সালে স্নিগ্ধা নামে পর্দা ওঠে উপহারের। মাঝখানে কয়েক বছর বন্ধ থাকার পর ১৯৮৫ সালে ‘অন্যায় অবিচার’ নামের সিনেমার প্রদর্শনীর মধ্য দিয়ে উপহার নামে যাত্রা শুরু করে হলটি। হলটি ২০১২ সাল থেকে উপহার সিনেমা হলের ডিজিটাল প্রজেকশন ব্যবস্থাপনায় ছিল চলচ্চিত্র প্রযোজনা সংস্থা জাজ মাল্টিমিডিয়া। শনিবার দুপুরের পর প্রজেকশন যন্ত্রাংশ খুলে নিয়ে গেছে সংস্থাটি। গত ১১ অক্টোবর রাত ১২টায় শেষ প্রদর্শনী মধ্য দিয়ে বন্ধ হয়ে গেছে রাজশাহী মহানগরীর একমাত্র টিকে থাকা উপহার সিনেমা হলটি।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top