logo
news image

প্রতিবন্ধীদের জন্য চাকরি মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক।  ।  
সিলেটে আয়োজিত একটি চাকরির মেলায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের চাকরি দেওয়ার যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়। সামাজিক দায়বদ্ধতা ও অর্থনৈতিক উন্নতির লক্ষ্যে প্রতিবন্ধীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির উদ্যোগে ১৮ আগস্ট এ মেলার আয়োজন করা হয়। সিলেটের বিভিন্ন খাদ্য উৎপাদন ও বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান, আবাসিক হোটেল, রেস্তোরাঁ, হাসপাতাল, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও শিল্পপ্রতিষ্ঠান এই চাকরি মেলায় অংশ নেয়। এসব প্রতিষ্ঠানে চাকরির জন্য চার শতাধিক প্রতিবন্ধী আবেদনপত্র জমা দেন। মেলায় তাৎক্ষণিকভাবে অর্ধশতাধিক প্রতিবন্ধীকে চাকরি দেওয়া হয় এবং আরও শতাধিক প্রতিবন্ধীকে চাকরি দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়। জমা হওয়া আবেদনপত্র সিলেট চেম্বারের মাধ্যমে যাচাই-বাছাই শেষে প্রতিষ্ঠানগুলোর চাহিদা অনুযায়ী চাকরি দেওয়া হবে বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়।
সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, দেশে বর্তমানে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির সংখ্যা ১৫ লাখের বেশি। প্রতিবন্ধীরা সমাজেরই অংশ। কিন্তু বাস্তবে প্রতিবন্ধী জনগোষ্ঠী এবং তাদের মৌলিক অধিকারের ব্যাপারে সমাজে চরম উদাসীনতা এবং অবহেলা লক্ষ করা যায়। সব ধরনের অধিকার নিয়ে বেঁচে থাকার জন্য তাদের যে সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করা উচিত, তা করতে আমরা ব্যর্থ হচ্ছি। তাদের মেধার বিকাশে যথেষ্ট উদ্যোগ নেই। প্রতিবন্ধীদের দিয়ে কিছুই হবে না—এমন মনোভাব আমাদের সমাজে প্রবল। উপযুক্ত চিকিৎসা, শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের অভাবে তাদের অধিকাংশই মানবেতর জীবনযাপনে বাধ্য হয়।
অথচ এসব অসহায়, অবহেলিত মানুষকে দক্ষ জনশক্তিতে রূপান্তর করে তাদের স্বনির্ভর করা সম্ভব। এ জন্য তাদের যথাযথ শিক্ষা নিশ্চিত করার পাশাপাশি কর্মসংস্থানের সুযোগ নিশ্চিত করতে হবে। তাহলে আর তাদের যেমন পরিবারের বোঝা হিসেবে বেঁচে থাকতে হবে না, তেমনি দেশের অর্থনীতির উন্নয়নেও তারা ভূমিকা রাখতে পারবে।
বাংলাদেশ সরকার ২০০৭ সালে প্রতিবন্ধীদের অধিকার রক্ষাবিষয়ক কনভেনশনে স্বাক্ষর করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৩ সালে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন প্রণয়ন করা হয়। এই আইনে বলা আছে, কোনো বেসরকারি প্রতিষ্ঠান যদি তার মোট কর্মীর ১ শতাংশ প্রতিবন্ধী ব্যক্তি নিয়োগ করে, তাহলে সেই প্রতিষ্ঠান কর দেওয়ার ক্ষেত্রে ছাড় পাবে। বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের নিয়োগ দিয়ে এ সুবিধা নিতে পারে। সরকারি চাকরিতেও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য ১ শতাংশ কোটা সংরক্ষিত রয়েছে। এটা আরও বাড়ানো উচিত বলে আমরা মনে করি।
আমরা চাই, সিলেটের চাকরির মেলার মতো এ রকম আরও মেলার আয়োজন করা হোক। চাকরি পান প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top