logo
news image

নাটোরের লালপুরে বন্দুক যুদ্ধে নিহত ১

নিজস্ব প্রতিবেদক। ।  (www.dailypraptiprosongo.com)
নাটোরের লালপুরে র‌্যাবের সাথে কথিত বন্দুক যুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি ও মাদকসহ ১৪ মামলার আসামী শীর্ষ সন্ত্রাসী মেহের আলী (৩৫) নিহত হয়েছে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমান মাদক, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) রাত ২টা ৩০ মিনিটের দিকে উপজেলার চামটিয়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। নিহত মেহের আলী উপজেলার ভাদুর মোড়ের বাসিন্দা বলে জানিয়েছেন র‌্যাব।
র‌্যাব ৫ সিপিসি ২ এর মেজর শিবলী মোস্তফা জানান, নিয়মিত টহলের অংশ হিসেবে র‌্যাবের একটি অপারেশন দল লালপুর উপজেলায় টহল দেয়। টহলের এক পর্যায়ে উপজেলার চামটিয়া গ্রামে পৌছালে সেখানে কয়েকজনকে এক সাথে দলবদ্ধ হয়ে থাকতে দেখে র‌্যাবের দল সেদিকে অগ্রসর হলে সন্ত্রাসীরা র‌্যাবকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়ে। এ সময় র‌্যাবও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি ছুড়ে। এতে মেহের আলী গুলি বিদ্ধ হয় এবং অন্যরা পালিয়ে যায়। পরে আহত অবস্থায় মেহের আলীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করেন। র‌্যাব জানায় মেহের আলীর বিরুদ্ধে হত্যা, ডাকাতি ও মাদকসহ ১৪ টি মামলা চলমান রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে বিপুল পরিমান বিভিন্ন ধরনের মাদক, অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।
এদিকে র‌্যাবের প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, মঙ্গলবার (২৮ আগস্ট) রাত সোয়া ২ টা ১০ মিনিটের দিকে র‌্যাব-৫, রাজশাহীর, সিপিসি-২, নাটোর ক্যাম্পের একটি টহল দল উপজেলার গোপালপুর বাজার এলাকায় অবস্থানকালে গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, উপজেলার জয়ন্তীপুর গ্রামস্থ গোপালপুর-গৌরীপুরগামী পাকা রাস্তা হইতে ৩৫ গজ পূর্ব পার্শ্বে জনৈক কালাম হাজীর আম বাগানের ভিতর কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী মাদক ক্রয়/বিক্রয় এর উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে। রাত ২ টা ২৫ মিনিটের দিকে র‌্যাবের টহল দল জয়ন্তীপুর গ্রামস্থ জনৈক আলহাজ্ব কালাম এর আম বাগানের পৌছালে কিছু লোকের আনাগোনা দেখা যায়। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ০৩/০৪ জন ব্যক্তি পালিয়ে যাবার চেষ্টা করলে র‌্যাবের টহল দল নিজেদের পরিচয় দিয়ে আত্মসমর্পনের নির্দেশ দেয়। এ সময় তারা এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ করে পালাবার চেষ্টা করে। তখন টহল দল সরকারী সম্পদ ও নিজেদের জানমাল রক্ষার্থে পাল্টা গুলি বর্ষণ করে। উভয় পক্ষের মধ্যে আনুমানিক ৫ মিনিট গুলি বিনিময়ের পর ঘটনাস্থলে অজ্ঞাতনামা একজনকে আহত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায় এবং দলের অপর সদস্যরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। আহত ব্যক্তিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য দ্রুত লালপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষনা করেন। এ ঘটনায় র‌্যাবের আহত দুই সদস্যকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়।
এ সময় ঘটনাস্থল হতে একটি লোহার তৈরী বিদেশী পিস্তল, তিন রাউন্ড পিস্তলের তাজা গুলি, পিস্তলের গুলির একটি খালি খোসা, একটি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ১৬০ (একশত ষাট) পিচ ইয়াবা ট্যাবলেট, ৬২ বাষট্টি বোতল ফেন্সিডিল, নগদ চারশত বাষট্টি টাকা, দুইটি চার্জার টর্চ লাইট, পাঁচটি পুরাতন স্যান্ডেল, একটি গ্যাস লাইট, একটি মোবাইল ফোন, সিম কার্ড একটি উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে নাটোর ও রাজশাহী জেলার বিভিন্ন থানায় একটি খুন ও ছয়টি মাদকসহ সর্বমোট ১৪ টি মামলা রয়েছে। সে নাটোর জেলার লালপুর থানার অন্যতম শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত।

কমেন্ট করুন

...

সাম্প্রতিক মন্তব্য

Top